অষ্ট্রেলিয়ার দু’টি বিশ্ববিদ্যালয়ে “ইউনূস সামাজিক ব্যবসা কেন্দ্র” প্রতিষ্ঠিত

0
25
অষ্ট্রেলিয়ার দু’টি বিশ্ববিদ্যালয়ে “ইউনূস সামাজিক ব্যবসা কেন্দ্র” প্রতিষ্ঠিত

অষ্ট্রেলিয়ার দু’টি বিশ্ববিদ্যালয়ে “ইউনূস সামাজিক ব্যবসা কেন্দ্র” প্রতিষ্ঠিতঅ্যাডেলেইড, মার্চ ২২-২৩, ২০১৮
মার্চ ২১, ২০১৮ নোবেল লরিয়েট প্রফেসর মুহাম্মদ ইউনূস প্রথমবারের মতো অ্যাডেলেইড সফর করেন। মার্চ ২২, ২০১৮ অ্যাডেলেইড বিশ্ববিদালয়ে একটি “ইউনূস সামাজিক ব্যবসা কেন্দ্র” উদ্বোধন করা হয়। এ লক্ষ্যে ইউনূস সেন্টারের চেয়ারম্যান প্রফেসর মুহাম্মদ ইউনূস এবং অ্যাডেলেইড বিশ্ববিদ্যালয়ের ফ্যাকাল্টি অব দ্য প্রফেশন্স-এর নির্বাহী প্রধান পল হাচিনসন এর মধ্যে একটি সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত হয়। বিখ্যাত অ্যাডেলেইড ওভাল-এর অনুষ্ঠান কক্ষে আয়োজিত এই অনুষ্ঠানে উদ্বোধনী বক্তব্য রাখেন অ্যাডেলেইডের লর্ড মেয়র মার্টিন হেইস। তিনি প্রফেসর ইউনূসকে স্বাগত জানান এবং অ্যাডেলেইড নগরী ও দক্ষিণ অষ্ট্রেলিয়া রাজ্যের বিভিন্ন সমস্যা সমাধানে সামাজিক ব্যবসার প্রয়োজনীয়তার উপর গুরুত্বারোপ করেন। উল্লেখ্য যে, কিংবদন্তী ক্রিকেটার ডন ব্রাডম্যান এই ওভালেরই খেলোয়াড় ছিলেন।

এরপর প্রফেসর ইউনূস স্টেমসেল ফাউন্ডেশান, ওয়াইয়াট ট্রাস্ট ও গ্রামীণ অষ্ট্রেলিয়া কর্তৃক আয়োজিত এবং পেমব্রোক স্কুলে অনুষ্ঠিত অষ্ট্রেলীয় সামাজিক ব্যবসা ফোরাম ২০১৮-এ ভাষণ দেন। দক্ষিণ অষ্ট্রেলিয়ার গভর্ণর হিউ ভ্যান লী, এসি, অনুষ্ঠানে উদ্বোধনী ভাষণ দেন। তিনি বিশ্বব্যাপী ক্ষুদ্র ঋণ ও সামাজিক ব্যবসা প্রতিষ্ঠায় তাঁর অসামান্য অবদানের জন্য প্রফেসর ইউনূসের প্রশংসা করেন এবং আশা প্রকাশ করেন যে, দক্ষিণ অষ্ট্রেলিয়ার বিভিন্ন সমস্যা সমাধানে এই মডেলগুলো গুরুত্বপূর্ণ ভ‚মিকা রাখবে। প্রফেসর ইউনূস প্রাথমিক ও উচ্চ বিদ্যালয়ের দুই শতাধিক ছাত্র-ছাত্রীর উদ্দেশ্যে বক্তব্য রাখেন যারা তাঁর “তিন শূন্য-র পৃথিবী”র পরিকল্পনা এগিয়ে নিতে নিজেদেরকে “ড. ইউনূস ইয়ং অ্যাম্বাসের্ডস” ও “ড. ইউনূস কমিউনিটি অ্যাম্বাসের্ডস” নামে দু’টি পৃথক গ্রæপে স্বেচ্ছাসেবী হিসেবে নিজেদের সংগঠিত করেছে। প্রফেসর ইউনূস উপস্থিত সকলের উদ্দেশ্যে বর্তমান বিশ্ব-কাঠামো পরিবর্তনের লক্ষ্যে পুরোনো সমস্যাগুলোর সমাধানে নতুন উপায় খুঁজে বের করতে আহŸান জানান।

এরপর ফ্লিনডার্স বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর কলিন স্টার্লিং বিশ্ববিদ্যালটির বিভিন্ন ফ্যাকাল্টির ডীন, বিভিন্ন স্কুলের প্রধান এবং উর্ধ্বতন নির্বাহীদের নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে প্রফেসর ইউনূসকে স্বাগত জানান। চার শতাধিক শ্রোতার উদ্দেশ্যে তাঁর বক্তব্যে প্রফেসর ইউনূস একটি নতুন সভ্যতা গড়ে তোলার উদ্দেশ্যে নতুন পথ অনুসন্ধান করতে এবং এজন্য প্রয়োজনে নতুন কিছু করার ঝুঁকি নিতে উপস্থিত সকলকে উদ্বুদ্ধ করেন। তিনি প্রকৃতিগতভাবে মানুষ হিসেবে আমাদের যে সত্ত¡া Ñ অর্থাৎ উদোক্তা হতে সকলকে আহŸান জানান।

সন্ধায় প্রফেসর ইউনূসকে আনুষ্ঠানিকভাবে অভ্যর্থনা জানান “সোলারপিভি.টিভি”-র প্রতিষ্ঠাতা ও প্রধান নির্বাহী এবং “সোলার ফিউচার টুডে”-র উদ্যোক্তা টমাজ ¯øুসারজ। এই অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন অ্যাডেলেইডের ডেপুটি লর্ড মেয়র স্যান্ডি ভারশুর, দক্ষিণ অষ্ট্রেলিয়ার আইন পরিষদের সদস্য জিং শুয়ান লী, কূটনীতিকবৃন্দ, দক্ষিণ অষ্ট্রেলিয়ার কমিউনিটি নেতৃবৃন্দ এবং অন্যান্য অভ্যাগতগণ।

মার্চ ২৩, ২০১৮ ইউনিভার্সিটি অব সাউথ অষ্ট্রেলিয়া ও ইউনূস সেন্টারের যৌথ উদ্যোগে চালু করা হয় আরেকটি নতুন ইউনূস সামাজিক ব্যবসা কেন্দ্র। এই উপলক্ষে নগরীর মে’ফেয়ার হোটেলে আয়োজিত অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের সিনিয়র শিক্ষক ও নির্বাহীবৃন্দ। বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষে সমঝোতা স্মারকে স্বাক্ষর করেন ভারপ্রাপ্ত উপাচার্য প্রফেসর অ্যালান ইভান্স এবং ইউনূস সেন্টারের পক্ষে এতে স্বাক্ষর করেন প্রফেসর ইউনূস। বিশ্ববিদ্যালয়টির বিজনেস স্কুলের অ্যাকাডেমিক ডীন প্রফেসর স্টিফেন বয়লে অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন। তিনিইউনূস সেন্টারের সহযোগিতার জন্য প্রফেসর ইউনূসের প্রশংসা করেন। তিনি আরো বলেন যে, এর ফলে বিশ্ববিদ্যালয়টি সামাজিক উদ্ভাবনের মাধ্যমে ও টেকসই উপায়ে সমাজকে এগিয়ে নিতে সামাজিক ব্যবসা ও ব্যবসায়িক উদ্যোগ সৃষ্টিতে প্রত্যক্ষ অবদান রাখার ক্ষেত্রে একটি বৈশ্বিক সহযোগীতে পরিণত হবে। প্রফেসর ইউনূস তাঁর বক্তব্যে এই পার্টনারশীপের জন্য বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষকে অভিনন্দন জানান এবং সামাজিক ব্যবসা আন্দোলনকে বিশ্বব্যাপী এগিয়ে নিতে পৃথিবীর ৩১টি দেশে প্রতিষ্ঠিত ৪৯টি ইউনূস সামাজিক ব্যবসা কেন্দ্রের সাথে ঘনিষ্ঠভবে কাজ করতে সকলকে আহŸান জানান।

সায়েন্স এক্সচেঞ্জ অব অ্যাডেলেইড-এ স্টুডেন্ট ইনভেশন সামিট ২০১৮-এ মূল সম্মেলন বক্তব্য রাখার মধ্য দিয়ে প্রফেসর ইউনূসের অ্যাডেলেইড সফর সমাপ্ত হয়। সম্মেলনের শতাধিক অংশগ্রহণকারীর উদ্দেশ্যে তাঁর বক্তব্যে প্রফেসর ইউনূস বৈশ্বিক চ্যালেঞ্জগুলো মোকাবেলায় তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে আসতে উদ্বুদ্ধ করেন এবং নগরীতে নব-প্রতিষ্ঠিত ইউনূস সামাজিক ব্যবসা কেন্দ্রের সাথে ঘনিষ্ঠভবে কাজ করতে তাঁদেরকে আমন্ত্রণ জানান।