কেনিয়ার নেতৃস্থানীয় ব্যবসায়ীদের অংশগ্রহণে “ইউনূস সামাজিক ব্যবসা কেনিয়া” উদ্বোধন করলেন প্রফেসর ইউনূস

0
61
কেনিয়ার নেতৃস্থানীয় ব্যবসায়ীদের অংশগ্রহণে “ইউনূস সামাজিক ব্যবসা কেনিয়া” উদ্বোধন করলেন প্রফেসর ইউনূস

 

নাইরোবী, মার্চ ১০:“ইউনূস সামাজিক ব্যবসা কেনিয়া” আনুষ্ঠানিকভাবে উদ্বোধন করলেন নোবেল লরিয়েট প্রফেসর মুহাম্মদ ইউনূস। তাঁর সাম্প্রতিক কেনিয়া সফরে প্রফেসর ইউনূস সামাজিক ব্যবসার মাধ্যমে সমাজের বিভিন্ন সমস্যা সমাধানের লক্ষ্যে এই প্রতিষ্ঠানটি চালু করলেন। তিনজন কেনিয়-ভারতীয় ব্যবসায়ী নেতার উদ্যোগে ইউনূস সোশ্যাল বিজনেস গেøাবাল (যার সদর দপ্তর বার্লিনে অবস্থিত) এর সাথে যৌথভাবে এই লভ্যাংশ-বিহীন কোম্পানীটি প্রতিষ্ঠিত হলো।

এই তিন ব্যবসায়ী ভারত দোশী, নীলেশ দোশী ও বিনয় সাংরাজকা সকলেই কেনিয়ার সফল ব্যবসায়ী নেতা। তাঁরা দীর্ঘদিন ধরে প্রফেসর ইউনূসের কাজে প্রবলভাবে অনুপ্রাণিত এবং প্রত্যেকেই বহু বছর ধরে কেনিয়া ও ভারতে বিভিন্ন জনহিতকর কাজে ব্যাপকভাবে বিনিয়োগ করে আসছেন। তাঁরা বিশ্বাস করেন যে, মানুষের বিভিন্ন সমস্যা সমাধানে সামাজিক ব্যবসা একটি দক্ষ ও কার্যকর বিকল্প। ইউনূস সামাজিক ব্যবসা কেনিয়া প্রতিষ্ঠা করে ব্যবসায়ের মাধ্যমে কেনিয়ার বিভিন্ন সামাজিক সমস্যা দুর করতে করতে তাঁরা কেনিয়ার ব্যবসায়ী সমাজকে ঐক্যবদ্ধ করার সিদ্ধান্ত নেন।

নাইরোবীর ব্যবসায়ী সমাজের ৩২০ জন নেতৃস্থানীয় সদস্যর উপস্থিতিতে আনুষ্ঠানিকভাবে ইউনূস সামাজিক ব্যবসা কেনিয়ার উদ্ধোধন করেন প্রফেসর ইউনূস। প্রাথমিকভাবে ১০ লক্ষ মার্কিন ডলার নিয়ে যাত্রা শুরুর পর প্রতিষ্ঠানটি প্রতি বছর আরো ৫ লক্ষ ডলার করে তহবিল বৃদ্ধির পরিকল্পনা করছে। উদ্বোধনীর পুর্বেই ৮ বন্ধুর নিকট থেকে ৮ লক্ষ ডলার তহবিলের প্রতিশ্রæতি পাওয়া যায়। অনুষ্ঠানে উপস্থিত অভ্যাগতদের মধ্যে ছিলেন ৯২ বছর বয়সী নাইরোবীর বিশিষ্ট ধনী ব্যবসায়ী ড. মানু চন্দরিয়া এবং বিখ্যাত সমাজসেবক ড. সি. এস. শেঠ। প্রফেসর ইউনূসের নব-প্রকাশিত গ্রন্থ “অ ডড়ৎষফ ড়ভ ঞযৎবব তবৎড়ং — ঞযব ঘবি ঊপড়হড়সরপং ড়ভ তবৎড় চড়াবৎঃু, তবৎড় টহবসঢ়ষড়ুসবহঃ, ধহফ তবৎড় ঘবঃ ঈধৎনড়হ ঊসরংংরড়হং”-এর জন্য একটি বিশেষ উদ্বোধনীরও আয়োজন করে ইউনূস সামাজিক ব্যবসা কেনিয়া।

ইউনূস সামাজিক ব্যবসা কেনিয়ার লক্ষ্য বিভিন্ন সামাজিক ব্যবসাকে সহায়তা দান ও এসব ব্যবসায়ে বিনিয়োগ করার পাশাপাশি কেনিয়ার ব্যবসায়ী সমাজকে দেশটির বিভিন্ন সামাজিক সমস্যা সমাধানে তাদের নিজেদের সামাজিক ব্যবসা গড়ে তুলতে উদ্বুদ্ধ করা। প্রতিষ্ঠানটির নেতৃবৃন্দ ২০২০ সালের মধ্যে ৩০টি সামাজিক ব্যবসা ও ৩০ হাজার কর্মসংস্থান সৃষ্টির পরিকল্পনা করছেন যা কেনিয়ার ২০ লক্ষ মানুষের জীবনে ইতিবাচক পরিবর্তন আনবে। অনুদানকে টেকসই সামাজিক ব্যবসায়ে বিনিয়োগে রূপান্তরিত করে ইউনূস সামাজিক ব্যবসা কেনিয়া সমাজের সেসব সমস্যা মোকাবেলায় কাজ করবে যা প্রচলিতভাবে দাতা সংস্থা ও দাতব্য প্রতিষ্ঠানগুলো করে থাকে।

তাঁর কেনিয়া সফরের সময়ে প্রফেসর ইউনূস তরুণ উদ্যোক্তাদের আন্তর্জাতিক সংগঠন “ইয়ং প্রেসিডেন্ট অর্গানাইজেশন”-এর নাইরোবী চ্যাপ্টারের উদ্দেশ্যে ভাষণ দেন। ইয়ং প্রেসিডেন্ট অর্গানাইজেশন বিশ্ব জুড়ে প্রধান নির্বাহীদের সংগঠিত করে থাকে। প্রফেসর ইউনূসের ভাষণ শুনতে কেনিয়ায় সংগঠনটির ইতিহাসে সর্বোচ্চ সংখ্যক সদস্যর সমাবেশ ঘটে। তাঁর বক্তব্যে প্রফেসর ইউনূস তাঁর “অ ডড়ৎষফ ড়ভ ঞযৎবব তবৎড়ং” বইটির মূল তত্ত¡ নিয়ে কথা বলেন এবং সংগঠনটির সদস্যদেরকে তাঁদের নিজ নিজ শিল্প ও ব্যবসা ক্ষেত্রে সামাজিক ব্যবসা সৃষ্টির প্রয়োজনীয়তা সম্পর্কে ধারণা দেন।