সিডনীতে অনুষ্ঠিত “রোটারী ইন্টারন্যাশনাল প্রেসিডেন্সিয়াল পিসবিল্ডিং কনফারেন্স”-এ মূল ভাষণ দিলেন প্রফেসর ইউনূস

0
22
সিডনীতে অনুষ্ঠিত “রোটারী ইন্টারন্যাশনাল প্রেসিডেন্সিয়াল পিসবিল্ডিং কনফারেন্স”-এ মূল ভাষণ দিলেন প্রফেসর ইউনূস

সিডনীতে অনুষ্ঠিত “রোটারী ইন্টারন্যাশনাল প্রেসিডেন্সিয়াল পিসবিল্ডিং কনফারেন্স”-এ মূল ভাষণ দিলেন প্রফেসর ইউনূস

প্রফেসর ইউনূস সিডনীতে অনুষ্ঠিত “রোটারী ইন্টারন্যাশনাল প্রেসিডেন্সিয়াল পিসবিল্ডিং কনফারেন্স ২০১৮”-এ মূল ভাষণ প্রদান করেন। মার্চ ১৭, ২০১৮ অনুষ্ঠিত এই সম্মেলনে শিক্ষাবিদ, রাজনৈতিক নেতা, ব্যবসায়ী, কমিউনিটি নেতা ও শান্তিরক্ষা-কর্মীগণ শান্তি স্থাপনের বিভিন্ন উপায় এবং আন্তর্জাতিক ও স্থানীয় প্রেক্ষাপটে বিরোধ নিরসনে কীভাবে সকলে মিলে একযোগে কাজ করা যায় সে বিষয়ে আলোচনা করতে সমবেত হন। প্রফেসর ইউনূস বিদ্যমান অর্থনৈতিক ব্যবস্থা কীভাবে সমস্যার সৃষ্টি করে তা ব্যাখ্যা করেন এবং এই ব্যবস্থাটির পুনর্বিন্যাসের প্রয়োজনীয়তা নিয়ে কথা বলেন। অষ্ট্রেলিয়ার অন্যতম নেতৃস্থানীয় সাংবাদিক ও বৈদেশিক সংবাদদাতা হাই রেমিংটন ৫ শতাধিক অংশগ্রহণকারীর উপস্থিতিতে সম্মেলন মঞ্চেই প্রফেসর ইউনূসের বইটির উপর তাঁর সাক্ষাৎকার গ্রহণ করেন।

নোবেল লরিয়েট প্রফেসর মুহাম্মদ ইউনূস এখন অষ্ট্রেলিয়া সফর করছেন। তাঁর নতুন প্রকাশিত গ্রন্থ “অ ডড়ৎষফ ড়ভ ঞযৎবব তবৎড়ং”-এর বার্তাগুলো প্রচার করতে তিনি সম্প্রতি অষ্ট্রেলিয়া যান। সফরটি আয়োজন করছে গ্রামীণ অষ্ট্রেলিয়া। মার্চ ১৬, ২০১৮ তিনি গ্রামীণ অষ্ট্রেলিয়ার ফ্ল্যাগশীপ থট লীডারশীপ ইভেন্ট “সিম্পোজিয়াম জেড”-এ বইটির উপর আলোচনা করেন। নিউ সাউথ ওয়েলস-এর সাংসদ এবং অর্থ, সেবা ও সম্পদ বিষয়ক মন্ত্রী ভিক্টর ডমিনেল্লো সিম্পোজিয়ামে যোগ দেন এবং প্রফেসর ইউনূসের সাথে একটি বিশেষ বৈঠক করেন। তিনি সামাজিক ব্যবসা কীভাবে তাঁর রাজ্যের বিভিন্ন সামাজিক ও অর্থনৈতিক সমস্যা মোকাবেলায় সহায়তা করতে পারে সে বিষয়ে প্রফেসর ইউনূসের পরামর্শ চান। পরে নিউ সাউথ ওয়েলসের প্রধানমন্ত্রী গø্যাডিস বেরেজিকলিয়ান প্রফেসর ইউনূসের সাথে সাক্ষাৎ করেন এবং তাঁর বইটিতে উত্থাপিত বিভিন্ন ইস্যুর জন্য তাঁর প্রশংসা করেন।

নিউ সাউথ ওয়েলস বিশ্ববিদ্যালয় প্রফেসর ইউনূসের আগমন উপলক্ষ্যে দু’টি অনুষ্ঠানের আয়োজন করে। এর একটি ছিল অনুষ্ঠান মঞ্চেই প্রফেসর ইউনূসের সাথে তাঁর বইটিতে উত্থাপিত বিভিন্ন ইস্যু নিয়ে বিশ্ববিদ্যালটির চ্যান্সেলরের অংশগ্রহণে একটি আলোচনা। এই অনুষ্ঠানে যোগ দেন কমিউনিটি নেতা, ব্যবসায়ী, ব্যাংকার, ছাত্র ও শিক্ষকবৃন্দ। এছাড়াও উপাচার্য প্রফেসর ইউনূসের সম্মানে বিশ্ববিদ্যালয়টির ডীন, সিনিয়র শিক্ষক ও ফাউন্ডেশন নেতৃবৃন্দের অংশগ্রহণে একটি নৈশভোজের আয়োজন করেন। নৈশভোজ অনুষ্ঠানে উপাচার্যের সঞ্চালনায় প্রফেসর ইউনূসের সাথে অংশগ্রহণকারীদের বিভিন্ন বিষয়ে মতবিনিময় হয়। উপাচার্য সামাজিক ব্যবসার উপর শিক্ষাদান ও সামাজিক ব্যবসা কর্মকান্ড প্রসারের উদ্দেশ্যে গত বছর প্রফেসর ইউনূসের উদ্যোগে এই বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রতিষ্ঠিত সামাজিক ব্যবসা কেন্দ্রটির অগ্রগতি সম্বন্ধে জানতে চান।

তাঁর সফরের তৃতীয় দিন প্রফেসর ইউনূস অষ্ট্রেলিয়ার শীর্ষস্থানীয় বিনিয়োগ তহবিলগুলোর ম্যানেজারদের উদ্দেশ্যে বক্তৃতা দেন। তিনি বিনিয়োগ তহবিলগুলোর এক শতাংশ সমপরিমাণ অর্থ সামাজিক ব্যবসায়ে বিনিয়োগের জন্য সংরক্ষিত রাখতে আহŸান জানান। অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণকারী কয়েকজন ম্যানেজার আগামী ২৭-২৯ জুন, ২০১৮ ব্যাঙ্গালোরে অনুষ্ঠেয় সামাজিক ব্যবসা দিবসে অংশগ্রহণের আগ্রহ প্রকাশ করেন।

তাঁর সফরকালে অষ্ট্রেলিয়ার জাতীয় সম্প্রচার সংস্থা এবিসি প্রফেসর ইউনূসের একটি সাক্ষাৎকার গ্রহণ করে।