বরিশালে শিক্ষার্থীদের মহাসড়ক অবরোধ ও বিক্ষোভ

0
7

বরিশাল প্রতিনিধি : রাজধানীর বিমান বন্দর সড়কে বাস চাপায় দুই শিক্ষার্থী নিহতের ঘটনায় বরিশালে মহাসড়ক অবরোধ ও বিক্ষোভ করে শিক্ষার্থীরা। এতে যানবাহন আটকা পরে। বুধবার দুপুর সাড়ে ১২টা থেকে ঢাকা-বরিশাল মহাসড়কের নগরীর চৌমাথা এলাকায় এই অবরোধ সৃষ্টি করে তারা।

পাশাপাশি দুর্ঘটনায় জড়িতদের বিচারের দাবিতে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের উপর পুলিশের হামলার প্রতিবাদ জানিয়েছেন তারা। এছাড়া তাদের দাবি না মানা পর্যন্ত বিক্ষোভ অব্যাহত থাকবে বলে জানিয়েছে আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীরা।

এসময় তারা নানা স্লোগান দিয়ে বিক্ষোভ করে। অবরোধের ফলে মহাসড়কের দুই পাশে শত শত যান বাহন আটকা পড়ে। এতে করে ঢাকা থেকে বরিশাল ও কুয়াকাটাগামী যাত্রীবাহী বাসগুলোও আটকা পরে। যাতে ব্যাপক দুর্ভোগের সৃষ্টি হয়।

আন্দোলনরত সরকারি সৈয়দ হাতেম আলী কলেজের শিক্ষার্থী আবিদ জানান, ফিটনেস বিহীন গাড়ি শুধু ঢাকায় নয়, পুরো বাংলাদেশ জুড়েই। এতে প্রতিনিয়ত প্রাণহানি হচ্ছে। সর্বশেষ ঢাকায় ফুটপাতে দাড়ানো দুই শিক্ষার্থীর উপরে একটি বাস উঠে তাদের চাপা দেয়। নিহত হয় তারা। এই ঘটনার প্রতিবাদ করা হলেও পুলিশ আবার হামলা করছে শিক্ষার্থীদের উপর। এটা তো আর মগের মুল্লুক না। আমরা বিচার চাইলেও মারবে। তাই আন্দোলনে নেমেছি। ফিটনেস বিহীন গাড়ির বিরুদ্ধে এবং হামলাকারী পুলিশের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা না নেয়া পর্যন্ত আমাদের আন্দোলন চলবে।

শিক্ষার্থীরা মহাসড়ক অবরোধে যে সকল যানবাহন আটকা পড়েছে সেগুলোর কাগজপত্র ও ফিটনেস চেক করার জন্য পুলিশের প্রতি আহ্বান জানান এবং যেসকল গাড়ির ফিটনেস নেই সেগুলোর বিরুদ্ধে ব্যবস্থার দাবি জানান।

কোতোয়ালি মডেল থানার সহকারী কমিশনার ও ওসিসহ অতিরিক্ত পুলিশ গিয়ে সেখানে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা চালালেও বিকেল ৩টা পর্যন্ত বিক্ষোভ করে শিক্ষার্থীরা।