সমাজ বদলাতে শ্রমিকদের ঐক্যবদ্ধ করার প্রত্যয়ে মহান মে দিবস উদযাপন

0
105
সমাজ বদলাতে শ্রমিকদের ঐক্যবদ্ধ করার প্রত্যয়ে মহান মে দিবস উদযাপন

 

সমাজ বদলাতে শ্রমিকদের ঐক্যবদ্ধ করার প্রত্যয়ে মহান মে দিবস উদযাপন

সমাজ বদলানোর জন্য শ্রমিক শ্রেণীকে ঐক্যবদ্ধ করার প্রত্যয় নিয়ে মহান মে দিবস উদযাপন করলো উদীচীসহ সমমনা প্রগতিশীল সংগঠনসমূহ। গত ০১ মে মঙ্গলবার বিকাল ৪টায় রাজধানীর পুরানা পল্টনে মুক্তি ভবনের মৈত্রী মিলনায়তনে আয়োজিত হয় ২৪টি প্রগতিশীল সাংস্কৃতিক সংগঠনের সমন্বয়ে গঠিত “মে দিবস উদযাপন সাংস্কৃতিক পর্ষদ”-এর উদ্যোগে আয়োজিত বিশেষ অনুষ্ঠান। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন উদীচী কেন্দ্রীয় সংসদের সাধারণ সম্পাদক জামসেদ আনোয়ার তপন। এচাড়াও, আলোচনায় অংশ নেন উদীচী কেন্দ্রীয় সংসদের সভাপতি ড. সফিউদ্দিন আহমদ, প্রগতি লেখক সংঘের শামসুজ্জামান হীরা, চারণ সাংস্কৃতিক কেন্দ্রের জাহিদুল হক মিলু, বিবর্তন-এর হাফিজুর রহমান লাল্টু প্রমুখ।

অনুষ্ঠানে ড. সফিউদ্দিন আহমদ বলেন, পৃথিবীর ইতিহাস সংগ্রামের ইতিহাস। প্রমোদ বা বিলাসিতা নয়, মেহনত থেকেই শিল্পকলার উদ্ভব মন্তব্য করে তিনি আরো বলেন, প্রান্তিক পর্যায়ের মানুষের অব্যাহত শ্রমে আর ঘামেই গড়ে উঠেছে নগর সভ্যতা। আর তাই প্রান্তিক জনগোষ্ঠীকে পেছনে রেখে সত্যিকারের উন্নয়ন অর্জন করা সম্ভব নয়। অন্য বক্তারা বলেন, বিশ্বের কোটি কোটি শ্রমজীবী মানুষের অধিকার আদায়ের লক্ষ্যে আত্মবলিদানের মহান মহিমায় ভাস্বর একটি দিন হলো মে দিবস। ১৮৮৬ সালের এই দিনে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের শিকাগোর হে মার্কেটে শ্রমিকদের আন্দোলন ও রক্তদানের যে মহান ইতিহাস রচিত হয়েছিল তারই ধারাবাহিকতায় বিশ্বের বহু দেশে শ্রমিকদের ন্যায্য অধিকার আদায়ের পথ সুগম হয়েছিল। এসময় মহান মে দিবস উদযাপনে সরকার নির্ধারিত ¤েøাগান “মালিক-শ্রমিক ভাই ভাই, সোনার বাংলা গড়তে চাই”-এর সমালোচনা করে তারা বলেন, মালিক ও শ্রমিক কখনোই ভাই হতে পারে না।

অনুষ্ঠানে সভাপতির বক্তব্যে জামসেদ আনোয়ার তপন বলেন, শাসক ও শোষক শ্রেণী তাদের শাষন-শোষণ টিকিয়ে রাখে রাষ্ট্র-পুলিশ-আমলাতন্ত্র, আইন-আদালত আর সমাজে একটা অভেদ্য চক্র তৈরি করার মাধ্যমে। এ চক্র ভেঙ্গে ফেলার লক্ষ্যে ঐক্যবদ্ধ প্রচেষ্টা চালিয়ে যেতে হবে বলে মন্তব্য করেন উদীচীর সাধারণ সম্পাদক। অনুষ্ঠানের দ্বিতীয় পর্বে ছিল আলোচনা, গান ও আবৃত্তি। আয়োজক পর্ষদের অন্তর্ভুক্ত সংগঠনগুলোর মধ্যে উদীচী ছাড়াও রয়েছে প্রগতি লেখক সংঘ, চারণ, বিবর্তন, চারণ (মার্ক্সবাদী), সমগীত, মাদল, প্রাচ্যনাট, আনন্দম, স্বরব্যঞ্জন, সাংস্কৃতিক ইউনিয়ন, গণশিল্পী সংস্থা, রণেশ দাশগুপ্ত চলচ্চিত্র সংসদ, ছবির লড়াই, বটতলা, সমাজ অনুশীলন কেন্দ্র, কেন্দ্রীয় খেলাঘর আসর, স্বাধিকার, সৃজন, তীরন্দাজ, মাভৈ, গণসাংস্কৃতিক কেন্দ্র প্রভৃতি সংগঠন।

এছাড়া, গেÐারিয়ায় সিপিবি সূত্রাপুর থান সংসদ এবং সাভারে গার্মেন্টস শ্রমিক ট্রেড ইউনিয়ন কেন্দ্রের সাথে যৌথ উদ্যোগে মে দিবসের অনুষ্ঠান আয়োজন করে উদীচী। তেজগাঁও শিল্প এলাকা ও কাফরুলেও উদীচী’র উদ্যোগে আয়োজিত হয় মহান মে দিবসের অনুষ্ঠান।