সরকারি অনুদানপ্রাপ্ত ছবি দেবী টেলিভিশনে প্রচারের প্রতিবাদে মাছরাঙা টেলিভিশনের সামনে মানববন্ধন

0
18
সরকারি অনুদানপ্রাপ্ত ছবি দেবী টেলিভিশনে প্রচারের প্রতিবাদে মাছরাঙা টেলিভিশনের সামনে মানববন্ধন

তামাক নিয়ন্ত্রণ আইনের কোন রকম তোয়াক্কা না করেই চলছে সরকারি অনুদানপ্রাপ্ত ছবি দেবী টেলিভিশনে প্রচারের প্রতিবাদে মাছরাঙা টেলিভিশনের সামনে মানববন্ধনে বাঁধা প্রদানতামাক নিয়ন্ত্রণ আইনের কোন রকম তোয়াক্কা না করেই চলছে সরকারি অনুদানপ্রাপ্ত চলচ্চিত্র ’দেবী’ এবং কর্তৃপক্ষ ছবিটি গতকাল মাছরাঙা টেলিভিশনে প্রচার করার প্রতিবাদে অদ্য ১৪ ফেব্রæয়ারী, ২০১৯, মাছরাঙা টেলিভিশনের সম্মুখে বাংলাদেশের সকল তামাক বিরোধী সকল সংগঠনের অংশগ্রহণে আয়োজিত মানববন্ধন শুরু হয়। মানববন্ধনে বিভিন্ন দাবী সম্বলিত ব্যানার ও ফেস্টুন নিয়ে বাংলাদেশের তামাক বিরোধী প্রায় ১৮টি সংগঠনের প্রতিনিধিদের সমন্বয়ে এই কার্যক্রম শুরু হয়। কিছু সময় পরেই মাছরাঙা টেলিভিশনের হেড অব প্রোগ্রামের নেতৃৃত্বে অনেকে এসে মানববন্ধনে সরাসরি বাঁধা প্রদান করে। পরে হেড অব প্রোগ্রাম মানববন্ধনের অংশগ্রহণকারীদের সাথে অসামঞ্জস্যপূর্ণ ও আক্রমানাত্মক প্রশ্ন করা শুরু করেন। পরবর্তীতে মানববন্ধনের অংশগ্রহণকারীদের ছবি তুলে রাখার নির্দেশ দেন এবং সেখান থেকে দ্রæত প্রস্থান করার জন্য চাপ প্রয়োগ করেন।
সংগঠনগুলোর পক্ষে বিভিন্ন বক্তারা ধুমপান ও তামাকজাত দ্রব্য ব্যবহার (নিয়ন্ত্রণ) আইন ২০০৫ ভঙ্গ করে সরকারী অনুদানপ্রাপ্ত ’দেবী’ চলচ্চিত্রের বিশেষকরে ধারাবাহিৎকভাবে ধুমপানের দৃশ্য প্রদর্শনের তীব্র সমালোচনা ও নিন্দা জানান। ধুমপান ও তামাকজাত দ্রব্য ব্যবহার (নিয়ন্ত্রণ) আইন ২০০৫ আইনের ৫ (ঙ) ধারায় বাংলাদেশের তৈরী বা লভ্য চলচ্চিত্র, সিনেমা, নাটক ও প্রামাণ্যচিত্রে ধুমপান ও তামাকজাত দ্রব্য ব্যবহার নিষিদ্ধ করা হয়েছে। শুধুমাত্র কাহিনীর প্রয়োজনে তা ব্যবহার করলেও সঠিকভাবে আইন মেনে তা করা হয়নি। কারণে-অকারণে বারবার ধূমপানের দৃশ্য ব্যবহার করা এ ধরনের সিনেমার মাধ্যমে ধূমপানে উৎসাহিত হচ্ছে নতুন প্রজন্ম ও যুব সমাজ যা দেশের তামাকবিরোধী, জনস্বাস্থ্য ও উন্নয়ন কর্মীদের মধ্যে গভীর উদ্বেগ ও উৎকন্ঠার জন্ম দেয়ায় সংগঠণগুলো একযোগে কর্মসূচী বাস্তবায়তন করে আসছিল।
এরই ধারাবাহিকতায় গত ০৯ ফেব্রæয়ারী ২০১৯ তারিখে জাতীয় প্রেস ক্লাবের সম্মুখে ও তার পরদিন ১০ ফেব্রæয়ারী ২০১৯ জাতীয় প্রেস ক্লাব হলরুমে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে বারবার নি¤েœাক্ত দাবীগুলো উত্থাপন করে আসছে-
– তামাক নিয়ন্ত্রণ আইন সুস্পষ্টভাবে লংঘন করায় বক্তারা অনতিবিলস্বে দেবী সিনেমার প্রদর্শন ও টেলিভিশনে প্রচার বন্ধ করতে হবে; তবে প্রয়োজনীয় অংশে সংশোধন বা সংস্কার করে তা প্রচার করা;
– চলচ্চিত্রের মাধ্যমে তামাক কোম্পানির বানিজ্যিক প্রচারনাবন্ধ করতে হবে;
– দেশব্যাপী তামাক নিয়ন্ত্রণ আইনের সুষ্ঠু বাস্তবায়ন করতে হবে।
পাশাপাশি তামাক নিয়ন্ত্রণ আইন অগ্রাহ্য করায় দেবী সিনেমাসহ দর্শকদের এধরনের সকল চলচ্চিত্রগুলিকে বয়কট করার আহ্বান জানান। একই সাথে মানব বন্ধনে বক্তারা পরিচালক, প্রয়োজক, পরিবেশকসহ অভিনেতা-অভিনেত্রীসহ সকলের দৃষ্টি আকর্ষন করে এ ধরনের চলচ্চিত্রে অংশগ্রহণ থেকে বিরত আহবান জানান এবং মাননীয় প্রধাণমন্ত্রীর ঘোষনা অনুযায়ী ২০৪০ সালের মধ্যে বাংলাদেশকে তামাকমুক্ত দেশ গড়ার প্রত্যয়ে সামিল হওয়ার আহŸান জানান।
দেশের ১৮টি সংগঠনের সমন্বয়ে তামাক বিরোধী জোটের এই শান্তিপূর্ণ মানব বন্ধনে দেশের স্বনামধন্য টলিভিশন এর পক্ষ থেকে এ ধরনের অযাচিত আক্রমণ ও অশোভন ব্যবহার অংশগ্রহণকারীদের হতবাক করে দিয়ে দিয়েছে। উল্লেখ্য প্রতিটি কার্যক্রম ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ হতে অনুমতি গ্রহণ সাপেক্ষে পরিচালিত হচ্ছে ও দাবীগুলো নিয়মিতভাবে স্মারকলিপির মাধ্যমে স¦াস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ এবং তথ্য মন্ত্রণালয় বরাবর প্রদান করা হচ্ছে। এ ধরনের অযাচিত আক্রমণ ও অশোভন ব্যবহারে বাংলাদেশের তামাক বিরোধী সকল সংগঠন এর তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানায়।