স্ত্রীর বিরুদ্ধে চুরির মামলা মুন গ্রুপ মালিকের

0
37

স্ত্রীর বিরুদ্ধে চুরির মামলা করেছেন মুন গ্রুপের চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান। আর ওই মামলায় গ্রেপ্তার হয়েছেন শহিদ খান খোকা নামের একজন গাড়িচালক। আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দিও দিয়েছেন ওই চালক। এখন তিনি কারাগারে রয়েছেন।

১ কোটি ৮৫ লাখ টাকাসহ মূল্যবান দলিলপত্র ও বিভিন্ন ব্যাংকের চেক বই চুরির অভিযোগ এনে ১ মার্চ গুলশান থানায় স্ত্রী রাজিয়া রহমান ও গাড়িচালক শহিদ খানের বিরুদ্ধে মামলা করেন মিজানুর রহমান।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা গুলশান থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলম প্রথম আলোকে বলেন, মুন গ্রুপের চেয়ারম্যানের করা চুরির মামলায় গাড়িচালক শহিদ খানকে গ্রেপ্তার করার পর তিনি আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন। আর পলাতক আসামি রাজিয়া রহমানকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

মামলার এজাহারে মিজানুর রহমান বলেন, গত ১৯ ফেব্রুয়ারি তিনি গুলশানের বাসা থেকে অফিসে যান। অফিসে যাওয়ার আগে স্ত্রীকে বলে যান, সন্ধ্যার সময় তিনি সিঙ্গাপুরে যাবেন। এ জন্য স্ত্রীকে বাসার বাইরে যেতে নিষেধ করে যান। কিন্তু সন্ধ্যার সময় বাসায় ফিরে দেখেন আলমারিতে থাকা ফ্ল্যাট বিক্রির ১ কোটি টাকা, বিভিন্ন ধরনের ৯০ ভরি স্বর্ণালংকার, ডায়মন্ডের আংটি এবং মূল্যবান দলিলপত্র ও বিভিন্ন ব্যাংকের চেক খুঁজে পাচ্ছেন না।

এজাহারে আরও বলা হয়, পরে তিনি তাঁর বাসার কর্মচারীদের জিজ্ঞাসাবাদ করে জানতে পারেন, সেদিন দুপুরে মিতসুবিশি ল্যান্সার গাড়িটি নিয়ে বেরিয়ে যান তাঁর স্ত্রী। মামলার পরদিন গাড়িচালক শহিদ খানকে গ্রেপ্তার করে গুলশান থানার পুলিশ। তদন্ত কর্মকর্তা মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলম জানান, গাড়িটি উদ্ধার করা হয়েছে। অন্যান্য মালামালও উদ্ধারের চেষ্টা চলছে।

এ বিষয়ে জানতে মিজানুর রহমানের সঙ্গে টেলিফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করা হয়। তাঁর মুঠোফোনে ফোন দেওয়া হলে তিনি পরিচয় জানতে চান। পরিচয় দেওয়ার পরই তিনি ফোনটি কেটে দেন। এরপর আরও কয়েকবার চেষ্টা করা হলেও মিজানুর রহমানের সঙ্গে যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি।